Categories
রেগুলার পোস্ট

সকলের ঘরেই সোনালী রঙের এক ঘন তরল পদার্থ থাকে। যার স্বাদ অনন্য। একবার খেলে ইচ্ছে করে পুরোটা শেষ করে ফেলতে। আপনারা হয়তো বুঝে গিয়েছেন কি নিয়ে কথা বলছি। হ্যাঁ, মধু নিয়েই কথা বলছি। এর গুণ সম্পর্কে যত বলবো ততই কম। তবে ওইযে বলেছিলাম না একবার খেলে আরো খেতে মনের ভিতর এক উত্তেজনা কাজ করে। কিন্তু মধু অধিক পরিমাণে খেয়ে ফেললে আবার সমস্যা। মধু সবসময়ে পরিমিত পরিমাণে গ্রহণ করতে হবে৷ আমরা সবাই জানি, সকল খাবারেই ক্যালরি রয়েছে। ক্যালরি হচ্ছে শক্তির একক। খাদ্য গ্রহণের পর শরীরে যে শক্তি উৎপন্ন হয় সেটি পরিমাপ করার এককই হলো ক্যালরি। মধু উচ্চ ক্যালরি যুক্ত একটি পণ্য। তাহলে এখন মধুর ক্যালরি কত? ১০০ গ্রাম মধুতে ২৮৮ ক্যালরি থাকে। অর্থাৎ এক চামচ মধুতে ৬০-৬৫ ক্যালরি থাকে। মধুর প্রধান উপাদান কার্বোহাইড্রেট। এতে কোনো ফ্যাট থাকে না। তবে যখন কার্বোহাইড্রেট অধিক পরিমাণে গ্রহণ করা হয় তখন অতিরিক্ত অংশ আমাদের শরীরে ফ্যাট হিসেবে জমা হয়। মধুর রং, স্বাদ, বৈশিষ্ট, ক্যালরির উপাদানের ভিন্নতার কারণে একেক ফুলের মধুর ক্যালরি ভিন্ন পরিমাণের হয়ে থাকে। লিজেন্ড ফুল থেকে সংগৃহীত ১০০ গ্রাম মধুর ক্যালরি ৩৫০ আবার বাবলা ফুলের ১০০ গ্রাম মধুর ৩২০-৩৩৫ ক্যালরি রয়েছে। বকোহিয়েট ফুলের মধুতে ৩০৭- ৩১০ ক্যালরি রয়েছে। মধু যেহেতু উচ্চ ক্যালরিযুক্ত তাই ডায়বেটিস রোগীদের জন্য দিনে ১ চামচের বেশি মধু না খাওয়াই শ্রেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Calendar

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

Categories